অনলাইনে ঈদের কেনাকাটা

অনলাইনে ঈদের কেনাকাটা

সামনে ঈদ আসছে মানেই, এক ঝাঁক খুশীর পায়রা যেন বাক বাকুম করে ডানা ঝাপটানো শুরু করেছে।

ঈদ মানেই অপার খুশী , অপার আনন্দ। ঈদের এই অপার আনন্দের পরিপূর্ণতা লাভ করে নতুন পোশাক আর নতুন জুতা পেয়ে ৷ অনেকে শুধু তাদের আনন্দ জামা জুতায় সীমাবদ্ধ না রেখে  ম্যাচিং গহনা, কসমেটিকস ইত্যাদি থেকে শুরু করে ঈদ সামনে রেখে ঘর সাজাতে নতুন আসবাবপত্রও নিয়ে আসেন।

এবার ও বছর ঘুরে সামনে আসছে রোযার ঈদ বা ঈদ-উল ফিতর ৷ আর রোযার ঈদে যেহেতু কোরবানি ঈদের মতন কাটাকুটি নিয়ে ব্যস্ত থাকার সুযোগ নেই, তাই স্বাভাবিকভাবেই এই ঈদে মেয়ে, গিন্নি, সবাই চায় একটা ভালো ড্রেস অথবা শাড়ী একটু নিজের মনের মতো করে কিনে নিজেকে সাজিয়ে নিতে।

কিন্তু দুইবছর ধরে এই করোনা প্যান্ডেমিক এর ভয়াল ছোবলে মার্কেট এ যাওয়ার কথা ভাবলেই তো কেমন অজানা আশংকায় বুক কেঁপে উঠে। তাছাড়া শুধু করোনার কথা ও নয়। সারাদিনের কর্মব্যস্ত দিন শেষে মার্কেটে যেয়ে পছন্দের কাপড় খুঁজে কেনা টাও কম ঝক্কি-ঝামেলার নয়।

সময় এবং যুগের এখন আমুল পরিবর্তন হয়েছে। এই পরিবর্তনের সাথে তাল মিলিয়ে মানুষ রুচি এবং পছন্দ যেমন পরিবর্তন হয়েছে, পাশাপাশি অনেকেই হয়েছেন অনলাইন নির্ভর এবং ডিজিটালাইজড।

একটা সময় ছিলো,ঈদ মানেই আমরা কেনাকাটা করতাম মার্কেট যেয়ে। বিশেষ করে সারাদিন রোযা রেখে মার্কেটে মার্কেটে ঘুরাঘুরি,  সাথে রাস্তার জ্যাম আর দোকান গুলোর অসম্ভব ভীড়-সব মিলিয়ে ভয়াবহ অভিজ্ঞতা নিয়ে বাসায় ফিরতে হতো। মানুষ সবসময়ই বিকল্প খুঁজে।  এই ধারাবাহিকতায় রাস্তার যানজট এবং শপিংমল এ দুনিয়ার মানুষের গাদাগাদি, এ সব থেকে রেহাই পেতে অনেকেই এখন ঝুকছে বিভিন্ন ফেসবুক শপ অথবা ই কমার্স সাইটে।  কেবল ঘরে বসেই ইন্টারনেটের মাধ্যমে এক নিমিষেই সম্পন্ন হয়ে যাচ্ছে ছোটবড় যত শপিং।

যাই হোক, আমাদের আজকের নিবন্ধে আমরা কভার করবো এভেলেভেইল যত ঈদ কালেকশন ২০২১ এবং পাশাপাশি ঘরে বসেই ঈদের কেনাকাটা করার সময় কি কি খেয়াল রাখতে হবে।

ঈদ কালেকশন ২০২১

তো চলুন দেখা যাক অনলাইনে  ঈদের কেনাকাটা ২০২১  এর আদি অন্ত সব-

ঈদ কালেকশন ২০২

বরাবরের মতো এবারের ঈদেও রয়েছে বৈচিত্রপূর্ন কালেকশন এর সব সমাহার। ঈদ সামনে রেখে ফ্যাশন হাউজ গুলো এনেছে বিভিন্ন ডিজাইনার কালেকশন। এসব কালেকশন সহজেই পেয়ে যাবেন বিভিন্ন অনলাইন শপ, ই কমার্স সাইট এবং পাশাপাশি বিভিন্ন শপিং মলেও।

যেহেতু এবারের রোযার ঈদে প্রচুর গরম থাকার সম্ভাবনা রয়েছে, তাই সালোয়ার কামিজ অথবা পাঞ্জাবীর কালেকশন এ সুতি, ভয়েল এসব কাপড়ে এর উপর পাবেন বিভিন্ন সুতা, চুমকি, পুঁথি পাথর, জরি এবং ডলারের হালকা অথবা ভারী কাজের সম্ভার। ঈদ কালেকশন থ্রি পিস ২০২১ হিসেবে আরো থাকবে সফট সিল্ক, জামদানী, কাতান, টিস্যু এবং পিউর জর্জেট এর  কালেকশন। বেশ কয়েকটি অনলাইন শপ এ খোজ নিয়ে জানা গেলো এবারের ইদে মখমল এবং জর্জেট এর ফিউশনও নিউ কালেকশন হিসেবে অলরেডি কাস্টমার দের মনযোগ কাড়া শুরু করেছে।

নতুন কালেকশন হিসেবে রয়েছে টিস্যু কাপড়ের উপরে ভারী সুতোর কাজের থ্রি পিস ৷ এছাড়াও সুতি অথবা লাইট জর্জেট এর উপর জামদানী স্ক্রিন প্রিন্ট, ব্লক, বাটিক ইত্যাদির কাটতি ও চোখে পরার মতোন।

যারা বাজেটের মধ্যে থ্রি পিস নিতে চান, ব্লক, বাটিকের ড্রেস এর পাশাপাশি তাতের অথবা ভেজিটেবল টাই ডাই এর ড্রেস নিতে পারেন। এ ছাড়াও বিভিন্ন ডিজাইন এবং কাপড়ের ওয়ান পিস গুলো এবার বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে, ম্যাচিং করে প্যান্ট, এবং ওড়না বানিয়ে অনেকেই এসব ওয়ান পিসের দিকেও ঝুকছেন।

যাদের ড্রেস কিনে বানানোর সময় নেই,সহজেই অনলাইনে আনস্টিচড ড্রেস কিনে আবার অনলাইনেই দর্জি দিয়ে বানিয়ে নিতে পারেন। এবারই প্রথম বিভিন্ন অনলাইন টেইলারিং শপ খুব এভেইলেভেল দেখলাম। আপনি আপনার মাপঝোঁক দিয়ে সহজেই  এসব সাইট থেকে  আপনার বানানো ড্রেস একেবারে হোম ডেলিভারি নিতে পারবেন। চাইলে রেডিমেড কুর্তি অথবা রেডিমেড থ্রি পিস ও কিনতে পারেন আপনার পছন্দ মতোন অনলাইন শপ থেকে।

পাশাপাশি এবার মেয়েদের শাড়ির কালেকশনে জামদানী এবং কাতানের প্রাধান্য থাকবে।  কাতান মুলত সিল্ক অথবা সফট কাতান টাই বেশী চলবে এবারের ঈদে।   স্ক্রিন প্রিন্ট,  হাতের কাজ, খাদি,মনিপুরী, ব্লক বাটিক, কারচুপির কাজের শাড়ী এজ ইউজুয়াল চলবে। যেহেতু প্রচুর গরম এবার, তাই হালকা পাতলা প্রিন্ট অথবা কাজের সুতি অথবা মিক্স সুতির শাড়ী কেনাটাই আরামদায়ক হবে বলে আমি মনে করি। চাইলে বাজেটের মধ্যে চুমকি ঝুম শাড়ী, কোঠা কাপড়ে বিভিন্নরকম ডিজাইন অথবা কারচুপির  কাজের শাড়ীও সিলেক্ট করতে পারেন।

টিন এজ মেয়েদের ঈদ কালেকশন বলতে দু’ধরনের হতে পারে। কিছুটা ওয়েস্টার্ন টাইপ অথবা দেশীয় বিভিন্ন কালেকশন যেমন-কুর্তি, ফতুয়া, বিভিন্ন ডিজাইনের কামিজ ইত্যাদি। কিছুটা গর্জিয়াস নিতে চাইলে ভারী এমব্রয়ডারির ফ্লোর টাচ, আনারকলি,  অথবা পাকিস্তানি স্টাইলে লাচ্ছা টাইপ বেছে নিতে পারেন। চাইলে আবার আন স্টিচড থ্রি পিস এর কাপড় কিনে বিভিন্ন ডিজাইন করে জামা এবং পাজামা বানিয়ে নিতে পারেন ৷ আবার ওয়ান পিচ গুলো ও বেশ ট্রেন্ডি এবার টিন এজারদের জন্য। ম্যাচিং করা স্কার্ট প্লাজ্জো দিয়ে বেশ ভালোই লাগে দেখতে।

ওয়েস্টার্ন কালেকশন তো ভ্যারাইটিস টাইপ রয়েছে। ফ্রক টাইপ, রাম্পার, শার্ট স্কার্ট, জিন্স, টিশার্ট  আবার ফিউশন টাইপ ও বেশ চলে। বিশেষ করে ঈদের রাতে কোন ঘরোয়া পার্টি অথবা সোশ্যাল প্রোগ্রাম থাকলে বাড়ির টিন এজার রা এসব ওয়েস্টার্ন ড্রেস চুজ করতে পারে ৷ আজকাল তো অনলাইন শপের অভাব নেই। এবং ইদের আগে প্রায় প্রতিদিন ই এসব শপে লাইভ বেচাকেনা হবে, সেখান থেকেই যে কোন ড্রেস সুন্দর ভাবে পছন্দ করে নিতে পারবেন।

  • Salwar kameez set 908
  • 905 VANSHIKA BY HANSA COTTON PRINTED SUIT CATALOG IN SURAT
  • HANSA COTTON PRINTED Salwar kameez SUIT 903
  • VANSHIKA BY HANSA COTTON PRINTED SUIT 902
  • VANSHIKA Indian 3 pcs set 901

ঈদের কেনাকাটায় কি প্রাধান্য দিবেন?

অনলাইনে ঈদের কেনাকাটার ভালো খারাপ দুটো দিকই কিন্তু রয়েছে। আপনি যদি ঠিকঠাক অনলাইনের শপ টি নির্ধারণ করতে না পারেন, আপনার জন্য ঈদের আনন্দ পুরোটাই মাটি হবার চান্স রয়েছে। তাই অনলাইনে কেনাকাটার সময় নিন্মোক্ত ব্যাপারগুলো একেবারে মাথায় গেঁথে নিবেন।

১। প্রথমেই একটা ভালো ফিডব্যাক সম্বলিত বিশ্বস্ত অনলাইন শপ কে নির্ধারণ করুন। প্রথমেই আপনার নির্ধারণ করা সাইটের রিভিউ সাইটে গিয়ে রিভিউ লিস্ট গুলো দেখবেন। একটা কথা মনে রাখবেন, যে সাইটের রিভিউ যত বেশী এবং ভালো, সে সাইটের মান তত ভালো। কাস্টমার রিভিউ দিয়েই আপনি যে কোন শপের গুণাগুণ সহজেই যাচাই করে নিতে পারবেন।

২। এবার সাইটের এভেইলএভেইল প্রোডাক্ট ফলো করুন এবং আপনার পছন্দ অনুযায়ী কোন একটা ড্রেস চুজ করুন। রেডিমেড ড্রেস এর ক্ষেত্রে মাপঝোঁক মিলিয়ে নিতে ভুলবেন না অবশ্যই।  যদিও প্রতিটি প্রোডাক্ট এর ছবির সাথে প্রোডাক্ট ডিটেইলস লিখা থাকে, কিন্তু আপনার কোন কনফিউশান থাকলে অবশ্যই পেজ অথবা শপ মালিকের সাথে কথা বলে নিবেন।

৩। সম্ভব হলে ক্যাশ অন ডেলিভারির প্রোডাক্ট কিনবেন। এই ডেলিভারি সিস্টেম এর সুবিধা হচ্ছে,আপনার পছন্দ না হলে সাথে সাথেই ডেলিভারি ম্যান কে আপনি প্রোডাক্ট টি ফেরত দিতে পারবেন।

৪।ব্যাক্তিগত ভাবে আমার মতামত হলো, প্রথমেই আপনি একসাথে অনেক কিছু অর্ডার না করে অল্প দু’একটা প্রোডাক্ট অর্ডার করে দেখবেন অনলাইন শপের সার্ভিস বা কোয়ালিটি কেমন। এরপর পছন্দ হলে ইচ্ছামত অর্ডার করবেন, কোন অসুবিধা নাই তখন আর।

৫। ঈদে প্রচুর ঝামেলা থাকে অনলাইন শপ অথবা অফলাইন শপ সব জায়গাতেই। তাই একেবারে ইদের আগের মোমেন্ট  বা চাঁদ রাতে কেনাকাটা করলে ভালো অথবা সিলেক্টেড প্রোডাক্ট না পাওয়ার সম্ভাবনা ই বেশী। রোযার পাঁচ দশটা যেতেই মোটামুটি ইদের সমস্ত ফ্রেশ কালেকশন এভেইলএভেল হওয়া শুরু করে, সো এই সময়টা পিক করে আপনার পছন্দের কেনাকাটা সেরে ফেলতে পারেন চটজলদি।

একটা ভালো এবং বিশ্বস্ত অনলাইন শপ যেমন আপনার ঈদের আনন্দ দ্বিগুণ করে দিতে পারে আপনার পছন্দের পোশাক টি সরবরাহ করে, তেমনি একটা ফ্রড অনলাইন শপ পারে এক নিমিষেই আপনার সকল ঈদের খুশী একেবারে ম্লান করে দিতে। ঈদে অনলাইনে কেনাকাটা করবেন আপনার ঝামেলা কমানোর জন্য, আপনার শপিং প্রসেস কে ইফেক্টিভ এবং আরামদায়ক করার জন্য। কাজেই আপনাকে সর্বপ্রথম এটাই কনফার্ম হতে হবে আপনি একটা সঠিক জায়গা বেছে নিয়েছেন আপনার অনলাইন ভিত্তিক কেনাকাটা সম্পন্ন করার জন্য।এ ক্ষেএে আপনি নির্ধিদায় মাসুকা.নেট এর উপর নিভর করতে পারেন- masuka.net এমন একটা অনলাইন শপ যেখানে আপনি নিশ্চিন্তে কেনাকাটা করতে পারেন, কারন এখানে প্রডাক্টের মান নিয়ে আপনাকে কখনোই ভাবতে হবে না, আপনি যা দেখবেন সেটাই আপনাকে ডেলিভারী দেওয়া হবে,এবং প্রাইস অন্য যেকোন অনলাইন শপ থেকে অবশ্যই রিজেনেবল।

তো এই হলো আমাদের বিস্তারিত অনলাইনে  ঈদের কেনাকাটা ২০২১ সেশন। আশা করছি কিছুটা হলেও আমাদের আজকের আর্টিকেলটি আপনাদের অনলাইন ভিত্তিক ঈদের কেনাকাটায় সহায়তা করবে।

ঈদের আনন্দে মেতে উঠুন পরিবারের সবাই কে নিয়ে।

অগ্রীম ঈদের শুভেচ্ছা সবাইকে।

No Comments

Leave a Comment

Your email address will not be published.